পরিবারের সদস্যকে ঋণ দেওয়ায় মেনে চলুন এই ৬টি নিয়ম

0
498

jobপরিবারের কোনো সদস্যকে টাকা ধার দেওয়ার পর তা আদায় করাটা একটু কঠিনই বটে। টাকা ধার দেওয়ার সময় কি কোনো চুক্তিতে স্বাক্ষর করাতে হবে? ধারের টাকা আদায়ে কি ঋণ পরিশোধের কোনো সময়সূচি নির্ধারণ করতে হবে? কিন্তু তারা যদি কখনোই ধারের টাকা ফেরত না দেন তাহলে কী হবে?
এ ক্ষেত্রে এই ৬টি নিয়ম মেনে চলুন:
১. সবকিছু লিখে রাখুন
ঋণের সময়সীমা, সুদের হার এবং কখন থেকে পরিশোধ করতে হবে তার সবকিছু ‍লিখিতভাবে নির্ধারণ করুন। এমনটাই বলেছেন, ওয়ার্কেবল ওয়েলথ এর প্রতিষ্ঠাতা, পরিকল্পনাকারী এবং সিইও ম্যারি বেথ স্টরজোহান। তবে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আপনি এ ধরনের চুক্তি করবেন কিনা তাও একটি বিশেষ বিবেচনার বিষয়।
আর ঋণ পরিশোধে সক্ষম না হলে কী হবে তাও লিখিতভাবে নির্ধারণ করতে হবে।
এক্সওয়াই প্ল্যানিং নেটওয়ার্ক এর সহপ্রতিষ্ঠাতা এবং সনদধারী আর্থিক পরিকল্পনাকারী অ্যালান মুর এমনকি কোনো আইনজীবিকে সংশ্লিষ্ট করে একটি আইনী চুক্তি করার পরামর্শও দিয়েছেন। তিনি বলেন, অন্য আর যে কোনো ঋণের মতোই গণ্য করুন একে।
২. স্টরজোহান বলেন, আইআরএস বা ইন্টার্নাল রেভিনিউ সার্ভিস এর নির্দেশনা মতে, ১৪ হাজার ডলারের বেশি পারিবারিক ঋণের ওপর বর্তমান সুদের হার হলো: ৩ বছর পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত মেয়াদি ঋণের জন্য ০.৪৩% সুদ। ৩ থেকে ৯ বছরের মাঝারি মেয়াদের ঋণের জন্য ১.৫৩%। আর ৯ বছরের বেশি দীর্ঘ মেয়ারেদ ঋণের ওপর ২.৩০%। এ পরিমাণ সুদ গ্রহণ করা যায় করমুক্তভাবে।
৩. ঋণ পরিশোধ না করলে কী হবে তা বিবেচনায় রাখুন
আপনি যদি দেখেন যে, আপনার পরিবারের ঋণ গ্রহণকারী সদস্যটি ছুটি কাটাতে টাকা খরচ করছেন কিন্তু আপনার ঋণ পরিশোধ করছেন না তাহলে আপনার কী অনুভূতি হবে বা আপনি বিষয়টি কীভাবে মোকাবিলা করবেন?
মুর বলেন বিষয়টি নিয়ে আগে ভাগেই সততার সঙ্গে কথা বলুন। মুর বলেন, সকল পক্ষই এর পরিণতি সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে। যাতে এতে কোনো বিস্ময় তৈরি না হয়।
৪. সম্পর্ক পরিবর্তন হয় তা মনে রাখবেন
ব্যক্তিগত সম্পর্কে অর্থ অনেক সময়েই বিভক্তি সৃষ্টিকারী উপাদান হিসেব কাজ করে। পরিবারের কোনো সদস্যকে টাকা ধার দেওয়া শুধু আর্থিক লেনদেন নয় বরং আবেগগত বিষয়ও বটে।
সুতরাং নির্ধারিত সময়ের আগে পরিবারের সদস্যদেরকে ঋণ পরিশোধে চাপ দেবেন না। এতে সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে।
৫. সম্মানের সঙ্গে না বলা শিখুন
পরিবারের কেউ টাকা ধার চাইলেই যে দিতে হবে এমন কোনো কথা নেই। আপনার কাছে যদি টাকা না থাকে বা সম্ভাব্য চটচটে পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য বিনয়ের সঙ্গে তাকে না বলুন। তাকে ঠান্ডা মাথায় যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করে বলুন যে আপনার নিজের পারিবারিক আর্থিক লক্ষ্য অর্জনে কাজ করার কারণে আপনার কাছে অতিরিক্ত কোনো টাকা নেই তাকে ধার দেওয়ার মতো।
৬. ঋণ নয় উপহার দিন
স্টরজোহান এবং মুর দুজনেই পরামর্শ দিয়েছেন, পরিবারের সদস্যদেরকে টাকা ঋণ হিসেব না দিয়ে বরং উপহার হিসেবে দিন। যদি আপনি তা বহন করতে সক্ষম হন।
তাদেরকে বলুন আপনি তাদেরকে টাকাটা দিচ্ছেন তাদের দরকার বলেই। কিন্তু আপনি এ নিয়ে ঝগড়া করে সম্পর্ক খারাপ করতে চান না।
তাদেরকে বলুন যে, আপনি তাদেরকে টাকাটা দিচ্ছেন, যেন তারাও অন্য কোনো সদস্যের প্রয়োজনের সময় একই পরিমাণ টাকা উপহার হিসেবে দান করেন।

LEAVE A REPLY