বিশ্বব্যাপী উদ্বেগে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা বাড়ছে যে ভাবে

0
514

not-good-heltlhবিশ্বব্যাপী উদ্বেগে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা বাড়ছে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ব্রিটেনের শিশু সহায়তা সংস্থা এনএসপিসিসি’র চাইল্ড লাইন। শুধু যুক্তরাজ্যেই গত এক বছরে উদ্বেগ থেকে মুক্তির জন্য সহায়তা চেয়ে আবেদন করা শিশুর সংখ্যা ৩৫% বেড়েছে। ন্যাশনাল সোসাইটি ফর দ্য প্রিভেনশন অফ ক্রয়েলটি টু চিলড্রেন (এনএসপিসিসি) এর চাইল্ড লাইনের তথ্য-উপাত্ত থেকে দেখা গেছে উদ্বেগে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা তীব্রগতিতে বাড়ছে।
দুস্থ শিশুদের সহায়তা এবং পরামর্শদানকারী এই হেল্পপলাইন বলেছে, তারা ২০১৫-১৬ সালে উদ্বেগে আক্রান্ত শিশুদের ১১ হাজার ৭০৬টি ফোন কলের জবাব দিয়েছে। তুলনায় এর আগে বছর এমন ৮ হাজার ৬৪২টি ফোন কলের জবাব দেওয়া হয়েছে। এতে দেখা যায় সমস্যাটি আগের চেয়ে ৩৫% বৃদ্ধি পেয়েছে।
যেসব শিশুরা হেল্পলাইনে ফোন দিয়েছে তারা ব্যক্তিগত এবং পারিবারিক উদ্বেগ থেকে শুরু করে ইইউ রেফারেন্ডাম এর মতো রাজনৈতিক ইস্যুতে তাদের উদ্বেগের বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে চেয়েছে।
গত এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বরে এনএসপিসিসি’র কাছে সহায়তা চাওয়া শিশুর সংখ্যা ছিল ৬ হাজার ৫০০। এদের বেশিরভাগই প্রধানত উদ্বেগজনিত সমস্যার উল্লেখ করেছে। প্রতি মাসে গড়ে ১ হাজার শিশু উদ্বেগজনিত মানসিক সমস্যা থেকে মুক্তির জন্য পরামর্শ সহায়তা চেয়েছে।
আর এ ক্ষেত্রে একটি লিঙ্গ বৈষম্যের চিত্রও ফুটে উঠেছে। ছেলে শিশুদের তুলনায় ৭গুন বেশি সংখ্যক মেয়ে শিশু এই সমস্যা থেকে মুক্তির জন্য পরামর্শ সহায়তা চেয়েছে।
এছাড়া সম্প্রতি প্রকাশিত জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের তথ্য-উপাত্ত ঘেঁটে দেখা গেছে, অল্প বয়সী নারীদের মাঝে নিজের ক্ষতি করার প্রবণতা বেড়ে চলেছে। ২০০৫-৬ সাল থেকে শুরু করে গত এক দশকে বিষ বা অন্য কোনো বিষাক্ত পদার্থ খাওয়ার ফলে হাসপাতালে ভর্তি করার ঘটনা বেড়েছে ৪২%।
আর হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা নেওয়া মেয়ে রোগীর সংখ্যা বেড়েছে চারগুন বা প্রায় ৩৮৫%।
বাস্তবেই সমস্যা বেড়ে চলেছে নাকি মানসিক স্বাস্থ্য ইস্যুতে আগের চেয়ে বেশি সচেতনতা তৈরি হওয়ার ফলে এমন ঘটনা আগে চেয়ে বেশি পরিমাণে নথিবদ্ধ করার কারণে এই উর্ধ্বগতি দেখা দিয়েছে তা এখনো পরিষ্কার নয়।

LEAVE A REPLY